পূজামন্ডপে হামলা একটি গোষ্ঠীর পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ

 নিউজ ডেক্স |  Friday, October 29th, 2021 |  8:29 am

একটি গোষ্ঠীর পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট করার অপচেষ্টা চলছে। অসাম্প্রদায়িক দেশে সাম্প্রদায়িকতার কোনো স্থান নেই। সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় আপনাদের মতো আমিও ব্যথিত। জননেত্রী শেখ হাসিনা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতি অত্যন্ত আন্তরিক। যেখানে সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটেছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সেখানে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মানুষের দুঃখের কথা শুনেছেন এবং ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে নগরের নন্দনকানন চত্বরে   আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটি আয়োজিত সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির মহাসমাবেশে এসব কথা বলেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ জ ম নাসির উদ্দিন।

আ জ ম নাসির বলেন, চট্টগ্রামেও যেখানে ঘটনা ঘটেছে, আমি নিজে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছি। আপনাদের ক্ষোভ আমি বুঝি, আপনাদের দুঃখ কষ্ট আমি বুঝি। আমি আপনাদের সঙ্গে আগেও ছিলাম, এখনো আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো।

সনাতনী সম্প্রদায়ের মঠ মন্দির ভাংচুর, বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ ও ইসকন নোয়াখালী মন্দিরে সাধু-সন্ন্যাসী হত্যাসহ দেশজুড়ে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির উত্তরণে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মহাসমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ইসকনের সাধারণ সম্পাদক শ্রীপাদ চারুচন্দ্র দাস ব্রহ্মচারী। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে মুল অনুষ্ঠানমালা শুরু হয়। এরপর বৈদিক স্বস্তিবাচনের পর স্বাগত বক্তব্য দেন ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরের অধ্যক্ষ শ্রীপাদ লীলারাজ গৌর দাস ব্রহ্মচারী এবং দাবি পেশ করেন ইসকন চট্টগ্রাম বিভাগীয় সম্পাদক শ্রীপাদ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী।

মহাসমাবেশে মহাআর্শিবাদক ছিলেন শংকর মঠ ও মিশনের আচার্য তপনানন্দ গিরি মহারাজ, তুলসীধামের মোহন্ত মহারাজ দেবদ্বীপ মিত্র পুরী মহারাজ, চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহারের উপাধ্যক্ষ ড. জিনবোধি ভিক্ষু, পাথরঘাটা ক্যাথলিক চার্চের ফাদার মিস্টার লেনার্ড।

সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন, আওয়ামী লীগ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ, মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, উত্তর জেলার সভাপতি এমএ সালাম, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. রানা দাশগুপ্ত, দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, বিএনপি নগর সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) ইন্দু নন্দন দত্ত, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পালিত, যুবলীগ নেতা হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর, ইসকন কো রিজিওনাল সেক্রেটারি রাধা গোবিন্দ দাস ব্রহ্মচারী, বাংলাদেশ গীতা শিক্ষা কমিটির প্রধান উপদেষ্টা তপন কান্তি দাশ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, পুলক খাস্তগীর, শৈবাল দাশ সুমন, নীলু নাগ, রুমকি সেনগুপ্তা প্রমুখ।