শিশুকে যৌন নিপীড়নঃমহিলাদের গণপিটুনিতে আহত অভিযুক্ত

 সাহাবুদ্দীন সাইফ,হাটহাজারী প্রতিনিধিঃ |  Sunday, October 17th, 2021 |  10:13 pm

 

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সাত বছরের এক শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে ফরহাদ নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে, স্থানীয় মহিলাদের রোষানলে গণপিটুনি খেয়ে আহত ফরহাদ। অভিযুক্ত ফরহাদ চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার গহিরা এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে ২০ টাকার প্রলোভন ও কাঁচি দিয়ে জিহ্বা কেটে ফেলবার ভয় দেখিয়ে সাত বছরের কোমলমতি শিশুকে যৌণ নিপীড়ন করে ঐ যুবক। দুপুরে এই ঘটনা ঘটার পর সন্ধ্যায় শিশুটিকে ভাত খাওয়ানোর সময় শিশুটি তার মাকে ঘটনাটি খুলে বলে।

পরবর্তীতে ওই শিশু পাশের ঘরের আরেক মহিলাকেও ঘটনাটির বর্ণনা দেয়, পরে সব মহিলা একত্রিত হয়ে রাতে অভিযুক্ত ওই যুবককে পিটুনি দেয়। এতে সে গুরুতর আহত হয়। পরে ৯৯৯ এ ফোন দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়, পরে অবস্থা বেগতিক দেখে সেখান থেকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করে।

সরেজমিনে গেলে স্থানীয়রা ফরহাদ নামে ওই যুবককে লম্পট আখ্যায়িত করে বলেন, তার চরিত্র খুবই নোংরা। মহিলা দেখলেই আজেবাজে ইঙ্গিত করে কথা বলে। ছোট ছোট অনেক শিশুকে এর আগেও যৌন নিপীড়নের চেষ্টা করেছে। এবার সে রেহাই পায়নি।

ফরহাদ বিবাহিত এবং তার আট মাস বয়সী একটি শিশু সন্তান রয়েছে, তবে ঘটনারদিন ঘরে স্ত্রী সন্তান কেউ ছিলনা। এ সুযোগে সে শিশুটিকে যৌন নিপীড়ন করে। ফরহাদ কমপক্ষে ৪ থেকে ৫ টি বিয়ে করেছেন বলেও উপস্থিত মহিলারা সাংবাদিকদের জানান।

ঘটনার পর মহিলারা একত্রিত হয়ে পিটুনি দেয়ার বিষয়ে বলেন, ওর প্রতি সবারই ক্ষোভ ছিল। শিশুটিকে যৌন নিপীড়নের ঘটনা তাদের মনকে শান্ত রাখতে পারেনি। মারধরের সময় এলাকার কোন পুরুষ ঘটনাস্থলে ছিল না বলে জানান তারা।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে ফরহাদকে উদ্ধারকারী মডেল থানার এএসআই আবুল কালাম যৌন নিপীড়নের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। তার অবস্থা গুরুতর।

এবিষয়ে মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, গণপিটুনি খেয়ে অভিযুক্ত চমেকে চিকিৎসাধীন। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।